“দেশ ও জাতির শত্রু তারাই, যরা মাদরাসায় সন্ত্রাসের গন্ধ শুকে”

সেমিনারে প্রধান আলোচক ছিলেন, মুসলমানদের প্রথম কেবলা মসজিদে আকসার মেহমান শায়খ ড. আলী উমর ইয়াকুব আব্বাসী। প্রধান আলোচক তাঁর বক্তব্যে বলেন, বর্তমান বিশ্ব পরিস্থিতে মুসলমানদের ঐক্য-সংহতি বড় প্রয়োজন,

এ ঐক্য-সংহতির অভাবে মুসলমানরা আজ কঠিন পরিস্থিতির স্বীকার, গোটা বিশ্বে আজ তারা মার খাচ্ছে, হেয় প্রতিপন্ন হচ্ছে, হচেছ নানা হয়রানী আরলাঞ্ছনার স্বীকার।

মুসলমানদের হৃদয়ের স্পন্দন, প্রথম কেবলা মসজিদুল আকসায় আজ ইহুদি ও সাম্রাজ্যবাদী শক্তির কঠিন থাবা। তিনি বলেন, মুসলিম ভূখন্ড পবিত্র ভূমি জেরুজালেম ইসরাইলের দখলে।

মুসরমানরা উদ্বাস্তু হয়ে বিধর্মীদের দ্বারে দ্বারে ঘুরে বেড়াচ্ছে। এ কঠিন অবস্থা থেকে মুক্তির একমাত্র উপায় মুসলমানদের ইমান-আকিদা, বিশ্বাস পরিশুদ্ধ করে এক কাতারে শামিল হয়ে সকল ভেদাভেদ ভুলে পরস্পরে ঐক্য-সংহতির সুদৃঢ় প্রাচীর গড়ে তোলা।

তিনি আরো বলেন অচিরেই মুসলমানরা বীরদর্পে বায়তুল মুকাদ্দাসে প্রবেশ করবে। তিনি বাংলাদেশের ওলামায়ে কেরামের অবদানের প্রশংসা করেন এবং বাংলাদেশে সূখ সমৃদ্ধি কামনা করে মুনাজাত করেন।

পরিষদের চেয়ারম্যান মুফতি জহির ইবনে মুসলিম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক সেমিনারে আরো বক্তব্য রাখেন, শায়খুল হাদীস আল্লামা আশরাফ আলী, আল্লামা আতাউল্লাহ হাফেজ্জী, মাওলানা উবায়দুল্লাহ ফারুক, ড. আবু রেজা নিজাম উদ্দিন নদভী,

আতিকুল ইসলাম, শায়খ ড. কামাল আহমদ সুদান, শায়খ ফরিদ আহমদ খান, মাওলানা জোবায়ের আহমদ চৌধুরী, মাওলানা শেখ আজিম উদ্দিন, মুফতি মিজানুর রহমান সাঈদ, মাওলানা মাহফুজুল হক প্রমুখ।

মাদরাসাকে যারা যারা সন্ত্রাসবাদ বলে করে তারাই দেশ ও জাতির শত্রু বলে মন্তব্য করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি বলেন, মাদরাসা মসজিদকে যারা সন্ত্রাসবাদ বলে আখ্যায়িত করে, তারা কারা তাদেরকে চিহ্নিত করতে হবে।

এরাই দেশ ও জাতির শত্রু। আজ বাংলাদেশ মাদরাসা কল্যাণ পরিষদের আয়োজনে মুসলিম উম্মার ঐক্য-সংহতি শীর্ষক আন্তর্জাতিক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সৌদিতে ইয়েমেনি ড্রোন হামলা; পাইপ লাইনের ৮ নম্বর স্টেশনে আগুন

সৌদি মন্ত্রী বলেন, ড্রোনের হামলায় পাইপ লাইনের ৮ নম্বর স্টেশনে আগুন ধরেছে, তবে আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে। সৌদি আরবের সরকারি বার্তা সংস্থা এসপিএ জানিয়েছে, সৌদি তেল কোম্পানি ‘আরামকো’ ইস্ট-ওয়েস্ট তেল পাইপ লাইন পুরোপুরি বন্ধ করে দিয়েছে।

হামলার ক্ষয়ক্ষতি নিরূপন ও পাম্পিং স্টেশন মেরামতের জন্য এ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। গতকাল সকালেই ইয়েমেনের আল-মাসিরা টিভি চ্যানেল সৌদি আরবের তেল ও অর্থনৈতিক স্থাপনায় সাতটি ড্রোনের সাহায্যে হামলা চালানোর খবর জানিয়েছিল।

সৌদি আরবের জ্বালানী মন্ত্রী খালিদ আল-ফালিহ ইয়েমেনি ড্রোনের আঘাতে তাদের তেল স্থাপনা ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার কথা স্বীকার করেছেন। ইয়েমেন থেকে সৌদি আরবে সাতটি ড্রোন পাঠানোর পর এ খবর এলো।

তিনি বলেছেন, ড্রোন হামলায় গতকাল (মঙ্গলবার) ইস্ট-ওয়েস্ট পাইপ লাইনের দু’টি পাম্পিং স্টেশন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এই পাইপ লাইনের সাহায্যে আশ-শারকিয়া প্রদেশের তেল খনিগুলো থেকে উত্তোলিত তেল রেড সি উপকূলবর্তী ইয়ানবু বন্দরে নিয়ে যাওয়া হয়।

আরো সংবাদ পরতে পারেন

মতামত দেওয়া বন্ধ আছে