তিস্তার পানি নয়, নিত্যনতুন ইস্যু তো খেয়েই চলেছে এ জাতি! – তুহিন মালিক

0

মিলিয়ে নিন।

২রা অক্টোবর একটি লেখা পোষ্ট করেছিলাম। ‘কি হতে যাচ্ছে ভারত সফরে’ শিরোনাম দিয়ে। যা জাতীয় দৈনিকেও প্রকাশ হয়েছিল।

সেদিনের লেখায় যা যা অনুমান করেছিলাম, পরবর্তীতে সেগুলো শুধু হুবহু মিলেই যায়নি! বরং সেই আশংকার চাইতেও আরো অনেক বেশী কিছু দিয়ে আসা হলো ভারতকে!

সেদিন বলেছিলাম, দেশবিরোধী এই চুক্তি আড়ালের জন্য নিত্যনতুন ইস্যু তৈরি করা হবে। আর আশ্চর্যজনকভাবে এর প্রায় প্রতিটি আশংকায়ই এক এক করে ঘটে যাচ্ছে!

সেদিন বলেছিলাম, ‘জনগণ বেশী কিছু জানতে চাইলেই, ক্যাসিনো সম্রাট গ্রেফতার/ক্রসফায়ার ইস্যু ছেড়ে দেয়া হবে।’ আর আশ্চর্যজনকভাবেই চুক্তির ঠিক পরপরই ক্যাসিনো সম্রাটকে গ্রেফতার ইস্যুটি প্রথমেই ছেড়ে দেয়া হলো!

সেদিন বলেছিলাম ‘খালেদা জিয়ার জামিন/বিদেশে চিকিৎসা ইস্যুও তৈরি রাখা আছে।’

আর আশ্চর্যজনকভাবেই সেই সময়টাতেই ‘খালেদা জিয়ার জামিন/বিদেশে চিকিৎসা ইস্যু’ নিয়ে হরেকরকমের দৌড়ঝাঁপ নিশ্চয়ই সবার অজানা নয়। কই, দেশবিরোধী চুক্তি ইস্যুটি ধামাচাপার পর এই ইস্যুটি এখন আর কেন সামনে আসে না?

সেদিন বলেছিলাম, ‘এতে কাজ না হলে, পূজা মন্ডপে হামলার সাম্প্রদায়িক ইস্যু তো প্রস্তুত রয়েছেই।’ দেখুন, আজকে সেটাও সম্পন্ন করে দেয়া হলো!

এবার বাকি রইল শুধু ‘জঙ্গি আস্তানা/আইএসের দায় স্বীকারের ইস্যুটা!’ দেখা যাক, নিত্যনতুন অন্যকোন ইস্যু দিয়ে যদি কাজ না হয়, তাহলে হয়ত এটারও সাক্ষাৎ মিলবে অচিরে!

সেদিনের আমার লেখাটি শেষ করেছিলাম যে কথাটি দিয়ে, আজকেও সেই একই কথা দিয়েই লেখা শেষ করছি–

“তাই, তিস্তার পানি খাওয়ার দরকার নাই, নিত্যনতুন ইস্যু তো খেয়েই চলেছে এ জাতি!”

তুহিন মালিক
সংবিধান ও আইন বিশেষজ্ঞ