ইরাকের মত আরবদের সহায়তায় ইরানকে ঘিরে ফেলছে আমেরিকা !

ইরানের সম্ভাব্য হামলার অজুহাতে দেশটিকে ধীরে ধীরে ঘিরে ফেলছে আমেরিকা।মধ্যপ্রাচ্যের কয়েকটি আরব দেশের সহায়তায় ইরানের বিরুদ্ধে দুর্গ গড়ে তুলছে মার্কিন প্রতিরক্ষা দফতর পেন্টাগন।যেমনটা হয়েছিলো ইরাকে হামলা চালানোর আগে।

রোববার এ খবর প্রকাশ করেছে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম। পরমাণু চুক্তি নিয়ে ইরানের সাথে চলা উত্তেজনার মধ্যেই আমেরিকা মধ্যপ্রাচ্যে একটি প্যাট্রিয়ট আকাশ প্রতিরক্ষা ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থাপনা ও যুদ্ধজাহাজ পাঠাচ্ছে।

শুক্রবার মধ্যপ্রাচ্যের মার্কিন ঘাঁটিতে এসব প্রতিরোধ ব্যবস্থা মোতায়েনের ঘোষণা দিয়ে মার্কিন কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ‘উভচর যান ও উড়োজাহজ পরিবহনে সক্ষম ইউএসএস আর্লিংটন শিগগিরই উপসাগরে থাকা অপর যুদ্ধজাহাজ ইউএসএস আব্রাহাম লিংকনের সঙ্গে যোগ দেবে।’

খবর নিউইয়র্ক টাইমস ও বিবিসির। এদিকে ইরান আমেরিকার ওপর হামলার বিষয়টি প্রত্যাখান করে বলেছে, আমেরিকা ইরানের বিরুদ্ধে ‘মনস্তাত্ত্বিক যুদ্ধ’র অংশ হিসেবে মধ্যপ্রাচ্যে এসব অস্ত্র মোতায়েন করছে।

অন্যদিকে আমেরিকার তেলবাহী জাহাজসহ অন্যান্য বাণিজ্য জাহাজে ইরান হামলা চালাতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে মার্কিন সামুদ্রিক প্রশাসন। শুক্রবার এক বিবৃতিতে মার্কিন সামুদ্রিক প্রশাসন বলেছে,ইরানের এক সিনিয়র নেতা বলেছেন,ইরানের একটি ক্ষেপণাস্ত্রের আমেরিকার একটি জাহাজ ধ্বংস করা সম্ভব।

কাজেই মার্কিন সেনাবাহিনীকে সম্ভাব্য সব ধরনের হামলা ঠেকানোর জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে।সূত্র : এএফপি ও রয়টার্স ইরানের বিরুদ্ধে আমেরিকার যুদ্ধের প্রস্তুতির নেপথ্যে.. আমেরিকা মধ্যপ্রাচ্যে মেরিন সৈন্য, উভগামী বিভিন্ন যানবাহন, হেলিকপ্টার, বিমান ও আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা প্যাট্রিয়ট মোতায়েন করছে।

কিন্তু হঠাৎকরে কেন এসব অস্ত্র মোতায়েন করছে ওয়াশিংটন? এর কারণ হলো ইরান মধ্যপ্রাচ্যে আমেরিকার সব স্থাপনায় হামলা চালানোর প্রস্তুতি নিয়েছে বলে গোয়েন্দা প্রতিবেদন পাওয়ার পর ওয়াশিংটন এ তৎপরতা শুরু করেছে।শনিবার এ খবর জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে,ইরান মধ্যপ্রাচ্যে আমেকিার স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন স্থাপনায় হামলার পরিকল্পনা করছে। এরপর ইউএসএস আব্রাহাম লিঙ্কন ক্যারিয়ার স্ট্রাইক গ্রুপ ও বি-৫২ যুদ্ধবিমান উপসাগর অঞ্চলে পাঠানো হয়।

পেন্টাগণের এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‘মার্কিন বাহিনী ও আমাদের বিভিন্ন স্বার্থে ইরান হামলা চালাতে একেবারে প্রস্তুত এমন আভাস পেয়ে এসব সামরিক সরঞ্জাম মোতায়েন করা হচ্ছে।’

তবে ইরান আমেরিকার এসব যুক্তি প্রত্যাখান করে বলেছে, আমেরিকা মনস্তাত্ত্বিক যুদ্ধের মাধ্যমে ভয় পাইয়ে দেয়ার কৌশল হিসেবে মধ্যপ্রাচ্যে এসব সমরাস্ত্র মোতায়েন করছে।

সুত্র: arabianjournal

আরো পড়ুন:

দুবাই অ্যাওয়ার্ড খ্যাত ২৩তম আন্তর্জাতিক হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতা ২০১৯ এ অংশ নিতে দুবাই যাচ্ছেন বাংলাদেশের হাফেজ মুয়াজ মাহমুদ। পবিত্র রমজানে সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইতে আন্তর্জাতিক এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে।

২য় রমজানে শুরু হয়ে এ প্রতিযোগিতা চলবে ১৪ রমজান পর্যন্ত। ১৪ রমজান প্রতিযোগিতার সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান হবে। আন্তর্জাতিক এ প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করবেন রাজধানীর মিরপুরস্থ প্রতিষ্ঠান মারকাযু ফয়জিল কুরআন আল ইসলামী ঢাকার ছাত্র হাফেজ মুয়াজ মাহমুদ।

এর আগে প্রতিযোগিতার বাছাইপর্বে দেশের মেধাবী ৩২৭ জন হাফেজে কোরআন অংশগ্রহণ করেন। এরমধ্যে প্রথম স্থান অর্জন করে মুয়াজ মাহমুদ এ প্রতিযোগিতার একমাত্র প্রতিনিধি হিসেবে নির্বাচিত হন। সোমবার সন্ধ্যার ফ্লাইটে হাফেজ মুয়াজ মাহমুদ এবং তার শিক্ষক আন্তর্জাতিক পুরস্কারপ্রাপ্ত হাফেজ আব্দুল্লাহ আল মামুন দুবাইয়ের উদ্দেশে রওয়ানা হবেন।

মারকাযু ফয়জিল কোরআন আল ইসলামী ঢাকার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক, গুলশান সোসাইটি জামে মসজিদের খতিব মুফতি মুরতাজা হাসান ফয়েজি মাসুম দুবাইতে অনুষ্ঠিতব্য এ আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় হাফেজ মুয়াজের সফলতার জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন।

মতামত দেওয়া বন্ধ আছে