২৩ বার মাউন্ট এভারেস্ট জয় করে রেকর্ড গড়লেন কামি রিটা !

২৩ বার মাউন্ট এভারেস্ট জয় করে নেপালের পর্বতারোহী কামি রিটা শেরপা (৪৯) অনন্য এক রেকর্ড গড়েছেন। পর্বতটিতে দুদিক থেকে উঠা যায়। একটি হচ্ছে- নেপালের দিক দিয়ে, আর অন্যটি হচ্ছে- তিব্বতের দিক দিয়ে।

মঙ্গলবার তিনি ২৩ বারের মতো হিমালয়ের সর্বোচ্চ শৃঙ্গে আরোহন করেন। দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া এবং বছরের বেশিরভাগ সময় পর্বতটি বরফাচ্ছন্ন থাকায় কেবল মার্চ থেকে মে মাস পর্যন্ত এটিতে আরোহন করার অনুমতি আছে। পর্বতারোহীদের গাইড হিসেবে কাজ করা স্থানীয় অধিবাসীদের শেরপা বলা হয়।

কামি রিটাও পেশায় একজন শেরপা। নেপালের দিক থেকে গত মঙ্গলবার কামি রিটাসহ আট নেপালি এভারেস্টে আরোহন করেন। এ বছর রেকর্ডসংখ্যক ৩৭৮ জনকে (জনপ্রতি ফি ১১ হাজার মার্কিন ডলার)

পর্বতটিতে ওঠার অনুমতি দেয়া হয়। কয়েক সপ্তাহের মধ্যে বিশ্বের সর্বোচ্চ পর্বত শৃঙ্গে পর্বতারোহীদের একটি সম্মেলন হওয়ার কথা রয়েছে।

উৎসঃ jugantor

আরো পড়ুন:

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে উত্তেজনা থাকলেও যুদ্ধ হবে না: আয়াতুল্লাহ খামেনি

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আল খামেনি যুক্তরাষ্ট্র ও তার দেশের মধ্যে যুদ্ধের আশঙ্কা নাকচ করে দিয়ে বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে তার দেশের উত্তেজনা আছে। তবে উত্তেজনা থাকলেও যুদ্ধ হবে না।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ইরানের প্রেসিডেন্ট, পার্লামেন্ট স্পিকার, বিচার বিভাগের প্রধান, তিন বাহিনীর প্রধান, বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর প্রধান, সংসদ সদস্যসহ রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনের নীতিনির্ধারণী কর্মকর্তাদের এক সমাবেশে ভাষণ দিতে গিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

খবর তেহরান টাইমসের। ইরানের সর্বোচ্চ নেতা বলেন, আমেরিকার সঙ্গে ইরানের যে সংঘাত তা সামরিক পর্যায়ে যাবে না। আসলে এখানে যুদ্ধের কোনো সম্ভাবনাই নেই। তিনি বলেন, আমেরিকা যদি কোনো ধরনের সংঘাতে যায়, তবে সেই সংঘাত মোকাবেলায় ইরানি জনগণ প্রতিরোধ গড়ে তোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

আর এই সংঘাতে শেষ পর্যন্ত আমেরিকা পিছু হটতে বাধ্য হবে। দুই দেশের মধ্যে চলমান উত্তেজনাকে ‘আকাঙ্ক্ষার সংঘাত’ উল্লেখ করে ইরানের সর্বোচ্চ নেতা বলেন, দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা রয়েছে। তবে এ উত্তেজনায় কোনো যুদ্ধের জন্য নয়।

আর যদি কোনো যুদ্ধ বাধেও তবে শেষ পর্যন্ত ইরান বিজয়ীর বেশে উন্নত শির নিয়ে বেরিয়ে আসবে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের আলোচনা প্রস্তাবের বিষয়ে তিনি বলেন, আমেরিকায় এখন যে সরকার ক্ষমতায় আছে তার সঙ্গে আলোচনায় বসা বিষপানের সমতুল্য।

তারা চায় আমরা আমাদের ক্ষেপণাস্ত্রের পাল্লা কমিয়ে ফেলি। আর এর পর তারা আমাদের ওপর হামলা করলে আমরা যাতে তাদের পাল্টা জবাব দিতে না পারি। কেউ বোকার স্বর্গে বাস করলে নিজের শক্তিমত্তার উৎস নিয়ে এমন আলোচনায় বসে, বলেন তিনি।

আরো সংবাদ পরতে পারেন

মতামত দেওয়া বন্ধ আছে