জেরুজালেমে দূতাবাস স্থাপনকারী দেশগুলোকে বয়কটের আহ্বান ওআইসি’র !

জেরুজালেমে দূতাবাস স্থাপনকারী দেশগুলোকে বয়কটের আহ্বান ওআইসি’র ছবি: সংগৃহীত। জেরুজালেমে মার্কিন দূতাবাস স্থানান্তর ও বিতর্কিত এই নগরীকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার যুক্তরাষ্ট্রের সিদ্ধান্তের নিন্দা জানিয়েছে অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কোঅপারেশন (ওআইসি) ।

খবর বার্তা সংস্থা এএফপি’র

শনিবার এক বিবৃতিতে বলা হয়, সৌদি আরব আয়োজিত সম্মেলনে ‘জেরুজালেমে যুক্তরাষ্ট্র ও গুয়াতেমালার দূতাবাস স্থানান্তরের’ নিন্দা জানানো হয়েছে এবং এই নগরীতে দূতাবাস স্থাপনকারী দেশগুলোকে বয়কট করার জন্য ওআইসি’র সকল সদস্য রাষ্ট্রকে আহ্বান জানানো হয়েছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জামাতা জারেড কুশনার চলতি মাসের শেষের দিকে বাহরাইনের এক সম্মেলনে দীর্ঘ প্রতিক্ষিত মধ্যপ্রাচ্য শান্তি পরিকল্পনার প্রেক্ষিতে অর্থনৈতিক গুরুত্ব তুলে ধরবেন।

পরিকল্পনাটিকে ট্রাম্প ‘শতাব্দির চুক্তি’ হিসেবে উল্লেখ করেছেন। ফিলিস্তিনীরা এই পরিকল্পনাকে প্রত্যাখ্যান করেছে। তারা বলেছে, ট্রাম্পের সকল নীতি ইসরাইলের পক্ষে গেছে।

আরো পড়ুন: কচু-শাক বিক্রেতা থেকে মন্ত্রী ২০১৭ সালের ডিসেম্বর মাসে যুক্তরাষ্ট্র জেরুজালেমকে ইসরাইলে রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার পর থেকে ফিলিস্তিনীরা ট্রাম্প প্রশাসনের সঙ্গে সব ধরনের সম্পর্ক ছিন্ন করেছে।

সুত্র: ইত্তেফাক

ফিলিস্তিনের পাশে রাশিয়া-চীন !

আমেরিকার উদ্যোগে চলতি বছরের জুন মাসে বাহরাইনের রাজধানী মানামায় যে অর্থনৈতিক সম্মেলন অনিুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে তাতে চীন ও রাশিয়া যোগ দেবে না বলে জানিয়েছেন ফিলিস্তিনে নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত গুয়ো ওয়েই।

মঙ্গলবার এ খবর জানিয়েছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম। গুয়ো ওয়েই ফিলিস্তিনের পররাষ্ট্র উপদেষ্টা নাবিল শা’তকে জানিয়েছেন, চীন ও রাশিয়া বাহরাইনের সম্মেলন বয়কটের বিষয়ে একটি সমঝোতায় পৌঁছেছে।

চীনা রাষ্ট্রদূত বলেন,চীন ফিলিস্তিনের জনগণকে সমর্থন করে; তাদের ভাগ্য নির্ধারণের অধিকারের প্রতি বেইজিং প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। শুধু তাই নয় স্বাধীন ফিলিস্তিনি রাষ্ট্র গঠনের পরিকল্পনাকেও সমর্থন করে বেইজিং।

২৫ ও ২৬ জুন অনুষ্ঠেয় এ সম্মেলনকে অর্থনৈতিক সম্মেলন বলা হলেও মূলত সেখানে ইসরাইল-ফিলিস্তিন সংকট সমাধানের জন্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রণীত বিতর্কিত ‘শতাব্দির সেরা চুক্তি’ উন্মোচন করা হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

চেক প্রজাতন্ত্রকে ফিলিস্তিনের অভিনন্দন ইসরাইলের রাজধানী তেলআবিব থেকে চেক প্রজাতন্ত্র তাদের দূতবাস জেরুজালেমে স্থানান্তর করবে না বলে জানিয়েছে।এজন্য দেশটিকে অভিনন্দন জানিয়েছে ফিলিস্তিন।সোমবার এ খবর জানিয়েছে তুর্কি সংবাদ মাধ্যম ইয়েনি শাফাকের।

এক বিবৃতিতে চেক প্রজাতন্ত্র জানিয়েছে, চেক প্রজাতন্ত্র আন্তর্জাতিক আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।এজন্য ইসরাইল চেক প্রজাতন্ত্রের দূতাবাস জেরুজালেমে হস্তান্তরের যে প্রস্থাব দিয়েছে তা প্রত্যাখ্যান করে চেক প্রজাতন্ত্র।কারণ এই পদক্ষেপটি ইইউ এবং জাতিসংঘের অবস্থানের প্রতি বিরোধিতা করা হয়।

জেরুজালেম নিয়েই মূলত মধ্যপ্রাচ্যে সংঘাতের সৃষ্টি হয়, ১৯৬৭ সালে পশ্চিম জেরুজালেম ফিলিস্তিনিদের কাছ থেকে ইসরাইল দখল করে নেয়।এর আগে আমেরকা এবং গুয়েতেমালা আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের দূতাবাস জেরুজালেমে স্থানান্তর করে।

আরো সংবাদ পরতে পারেন

মতামত দেওয়া বন্ধ আছে