গান গাইতে এসে কুরআন তেলাওয়াত করলেন আমরিকান গাইকা

সম্প্রতি ফেসবুক একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে, সেখানে দেখা যায় একটি রেডিও প্রোগ্রাম একজন বাঙালীর পাশে বসে একজন ভিন দেশি নাড়ি কুরআন থেকে তিলওয়াত করছেন।

ভিডিওটি পোস্ট করার সাথে সাথেই ভাইরাল হয়ে যায় এবং চারিদিকে নারীর প্রশংসার গুণগান হতে থাকে। পোস্টকারী সেই নারীকে আমেরিকার কণ্ঠশিল্পী বলেছেন। তবে তিনি আসলেও আমেরিকার কণ্ঠ শিল্পী কিনা বা সে বিধর্মী কিনা সেই বিষয়ে এখনো কোন সত্যতা পাওয়া যায় নি।

আরো সংবাদ

পাকিস্তানের মিঠি গ্রাম হিন্দু-মুসলিম সম্প্রীতির অনন্য উদাহরণ

সেখ জিন্নাত আলি, বিবি নিউজ, সম্প্রীতি তৈরি করার জন্য যে সংখ্যাগুরু অথবা সংখ্যালঘু হতে হবে এমন কথা এখানে প্রযোজ্য নয়। দেশ, কাল, সময় এবং ধর্মীয় গন্ডি এখানে প্রভাব ফেলতে পারেনি।

সময় সাথে সাথে যখন উগ্রতা ক্রমশ বাড়ছে, অসহিষ্ণুতার বাতাবরণ যখন শান্তি প্রিয় মানুষের অন্তরকে ক্ষতবিক্ষত করছে তখন, যুগ যুগ ধরে সম্প্রীতির আবহাওয়া তৈরি করে রেখেছে পাকিস্তানের একটি হিন্দু অধ্যুষিত গ্রাম।

পাকিস্তানের মুল শহর করাচি থেকে এই গ্রামের দুরত্ব প্রায় ৩০০ কিলোমিটারের কাছাকাছি। মরুভূমির মধ্যে সুন্দর এক গ্রাম। আর এখানে বাস করেন সুন্দর মনের অসংখ্য মানুষ। এখানে ৮০ শতাংশ মানুষ অমুসলিম তথা হিন্দু সম্প্রদায়ের এবং অবশিষ্ট ২০ শতাংশ মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষের বাস।

পাকিস্তানের জন্মলগ্ন থেকে এখন পর্যন্ত এই গ্রামে কোন ধর্মীয় হানাহানি অথবা ধর্মীয় অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। এখানকার হিন্দু মুসলিম উভয় সম্প্রদায়ের মানুষের ধর্মের সাথে যুক্ত কোন বিতর্কিত মন্তব্য করেন না।

শুধু তাই নয়, তারা একে অপরের ধর্মের প্রতি কতটা সম্মান জানায় এবং শ্রদ্ধা করে তা তাদের ধর্মীয় আচার আচরণ এবং পারস্পরিক সহযোগিতা থেকেই স্পষ্ট। এখানে হিন্দুরা রমজান মাসে পরিবারের কারো বিবাহ দেন না। মুসলিমদের অসুবিধা হবে এমন কোন অনুষ্ঠানও করেন না।

উপরন্তু রমজান মাসে ইফতারের আয়োজন করেন। আবার এখানকার মুসলিমরাও হিন্দু ধর্মকে সম্মান জানিয়ে গরু জবাই করেন না এবং গরুর মাংস খাওয়া থেকে বিরত থাকেন।

ঈদ, দীপাবলি থেকে শুরু করে সমস্ত ধর্মীয় অনুষ্ঠানে উভয় সম্প্রদায়ের মানুষ সমান ভাবে অংশগ্রহণ করেন। পাকিস্তানের মধ্যে এই মিঠি গ্রামের অপরাধের সংখ্যা সবথেকে কম। শতকরা হিসাবে তা ২ শতাংশের কম। এখানে কখনও ঘটেনি জঙ্গি আক্রমণ, সংখ্যালঘুদের উপর অত্যাচার অথবা জোর করে ধর্মান্তরিত করার ঘটনা।

উল্লেখ্য যে, বিশ্বের কিছু দেশ মনে করে পাকিস্তান একটি সন্ত্রাসবাদী দেশ, তারা অপরাধীদের তৈরি করছে, প্রতিবেশি দেশি হামলা চালানোর ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে বারবার অভিযোগ ওঠে।

অথচ পাকিস্তানের অন্দরে, মরুভূমির মধ্যে এক সুন্দর, অসামান্য ধর্মীয় মেলবন্ধনে আবদ্ধ, একে অপরের সহযোগি, হিংসা-হানাহানি হীন মিঠি গ্রামের কথা অনেকেই জানেন না। হয়তো এই মিঠি গ্রামের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি একদিন সারা বিশ্বের মানুষকে পথ দেখাতে পারে।

মতামত দেওয়া বন্ধ আছে