থমথমে ভোলা; বিপ্লবের ফাঁ’সিসহ ৬ দফা দাবি সর্বদলীয় মুসলিম ঐক্য পরিষদ’র

0

ভোলার বোরহানউদ্দিনে পুলিশের গু’লিতে চারজন নি’হতের ঘটনায় পুলিশ সুপার (এসপি) ও বোরহানউদ্দিন থানা পুলিশের ওসির প্রত্যাহার দাবিসহ ছয় দফা দাবি জানিয়েছে সর্বদলীয় মুসলিম ঐক্য পরিষদ। সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ভোলা প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে এ দাবি জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে সর্বদলীয় মুসলিম ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক মাওলানা বশির উদ্দিন লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন। তিনি বলেন, পরিস্থিতি শান্ত রাখার স্বার্থে সমাবেশ স্থগিত করা হয়েছে। তবে দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত এই আ’ন্দোলন চলমান থাকবে। এ সময় তিনি তিনদিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে আগামীকাল মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) জেলার সব উপজেলায় বি’ক্ষোভ, বৃহস্পতিবার (২৪ অক্টোবর) মানববন্ধন ও শুক্রবার (২৫ অক্টোবর) নি’হতদের স্মরণে দোয়া ও মোনাজাত।

সংবাদ সম্মেলনে সর্বদলীয় মুসলিম ঐক্য পরিষদের যুগ্ম সদস্য সচিব মাওলানা মিজানুর রহমান ৬ দফা দাবি তুলে দরে বলেন, আল্লাহ এবং নবী-রাসুলদের নিয়ে কটূক্তিকারীর বিরুদ্ধে যদি দেশে কঠিন শা’স্তির আইন থাকত তাহলে রোববার বোরহানউদ্দিনে পুলিশের গু’লিতে চারজন নি’হত হতো না।

তিনি বলেন, মহানবী হযরত মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ও ইসলামকে ব্যাঙ্গ ও কটূক্তিকারীর বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ শা’স্তির আইন করতে হবে। বিপ্লব চন্দ্র শুভর সর্বোচ্চ শাস্তি ফাঁ’সি দিতে হবে। সং’ঘর্ষে নি’হতদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। আ’হতদের সরকারি খরচে চিকিৎসা দিতে হবে। এ ঘটনায় গ্রে’ফতারদের নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে।

সংবাদ সম্মেলনে মাওলানা ইয়াকুব আলী চৌধুরী, মাওলানা মো. ইউসুফ, মাওলানা মো. আতাহার আলী, মাওলানা তৈয়বুর রহমান, মাওলানা মহিউদ্দিন, মাওলানা মাহাবুবুর রহমান, সদস্য সচিব মাওলানা তাজুদ্দিন ফারুকী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। সুত্র: যুগান্তর

ভোলায় তৌহিদী জনতার উপর হা’মলা; কওমী ফোরামের প্র’তিবাদ

ভোলার বোরহান উদ্দীন উপজেলায় ফেসবুকে স্থানীয় হিন্দু যুবক কর্তৃক আল্লাহ ও মহানবী হযরত মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে নিয়ে অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্যকারীর শাস্তির দাবিতে আয়োজিত সমাবেশে পুলিশের গু’লিতে কমপক্ষে ৪ জন শহীদ এবং শতাধিক ব্যক্তিকে গুরুতর আ’হত করার প্রতিবাদ জানিয়েছে কওমী ফোরাম।

গতকাল অপরাহ্নে কওমী ফোরামের সমন্বয়ক মাওলানা হাসান জামিলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ফোরামের এক জরূরী বৈঠকে এ প্র’তিবাদ জানানো হয় । বৈঠকে অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন মাওলানা মুহাম্মাদ মামুনুল হক, মাওলানা খালিদ সাইফুল্লাহ আইয়ূবী, মুফতী সাখাওয়াত হোসাইন রাজি, মাওলানা ওয়ালী উল্লাহ আরমান, মাওলানা গাজী ইয়াকুব, মুফতী এনায়েতুল্লাহ্, মাওলানা মুরতাজা হাসান ফয়েজী প্রমুখ।

বৈঠকে নেতৃবৃন্দ বলেন, কিছুদিন পরপর দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে আল্লাহ আল্লাহর রাসূল এবং ইসলাম ধর্মকে কটাক্ষ করে সমাজে অস্থিরতা সৃষ্টি করা হয়। পরবর্তীতে দেখা যায় তোতাপাখির মত গদবাধা কথায় বিষয়টিকে ধামাচাপা দেওয়া এবং অপরাধীর জঘন্য অপরাধকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করা হয়।

তাঁরা বলেন, বিস্ময়কর ব্যাপার হচ্ছে, ভোলার বোরহানউদ্দিনে হিন্দু ধর্মাবলম্বী বিপ্লব কুমার শুভ নামক দুরাচার তার ফেসবুক আইডি থেকে মুসলমানদের আস্থা, আনুগত্য এবং ভালবাসার জায়গা, সর্বশেষ ও সর্বশ্রেষ্ঠ রাসূল হযরত মুহাম্মদ রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে জড়িয়ে জঘন্য কটুক্তি করে।

এর প্রতিবাদে ও তার বিচারের দাবিতে সকালে বোরহান উদ্দিনের তৌহিদী জনতা শান্তিপূর্ণ প্র’তিবাদ এবং বি’ক্ষোভ কর্মসূচির আয়োজন করে। কিন্তু তাদের সেই শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি বানচালের জন্য প্রশাসনের মধ্যে ঘাপটি মেরে থাকা কোন একটি মহল প্রোগ্রাম বাধাগ্রস্ত করে এবং শান্তিপ্রিয় জনতাকে উস্কে দেয়।