জামায়াত নেতা আলী হাসান মুজাহিদের ভাইয়ের জানাযায় হাজারো মানুষের ঢল

0

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সাবেক সেক্রেটারী জেনারেল, সাবেক সমাজ কল্যাণ মন্ত্রী জনাব আলী আহসান মোহা: মুজাহিদের বড় ভাই, জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় মজলিসে শূরার সদস্য ও ফরিদপুর জেলা জামায়াতের নায়েবে আমীর জনাব আলী আফজাল মোহাম্মদ খালেছ গত ৫ সেপ্টেম্বর রাত ৮টায় ব্রেইন স্ট্রোক করে ৭৬ বছর বয়সে ঢাকায় ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না-ইলাইহি রাজিঊন)।

তিনি স্ত্রী, ৩ পুত্র ও ১ কন্যাসহ বহু-আত্মীয়-স্বজন রেখে গিয়েছেন। আজ ৬ সেপ্টেম্বর বাদ জুমা ফরিদপুর বায়তুল উলুম মাদ্রাসা মাঠে নামাজে জানাযা শেষে তাকে পশ্চিম খাবাসপুর গ্রামে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

এ জানাযায় অংশগ্রহণ করেন জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমীর ও সাবেক এমপি অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ার, কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য মাওলানা আব্দুল মান্নান, সাংগঠনিক সেক্রেটারী জনাব মোহা: দেলাওয়ার হোসাইন, ফরিদপুর জেলা জামায়াতের আমীর মাওলানা মোহা: বদরউদ্দিন, অঞ্চল পরিচালকবৃন্দ ও জেলা জামায়াতের নেতৃবৃন্দ।

শোকবাণী

জনাব আলী আফজাল মোহাম্মদ খালেছের ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর আমীর জনাব মকবুল আহমাদ আজ ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ এক শোকবাণী প্রদান করেছেন।

শোকবাণীতে তিনি বলেন, “জনাব আলী আফজাল মোহাম্মদ খালেছ আল্লাহর দ্বীনের জন্য একজন নিবেদিত প্রাণ ব্যক্তি ছিলেন। ফরিদপুর জেলা জামায়াতের সাংগঠনিক কাজের উন্নতি ও অগ্রগতির পেছনে তার বিরাট অবদান রয়েছে। সাংগঠনিক জীবনে তিনি অনেক ত্যাগ স্বীকার করে গিয়েছেন।

জনাব আলী আফজাল মোহাম্মদ খালেছ (রাহিমাহুল্লাহ)-কে আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তা’আলা ক্ষমা ও রহম করুন এবং তাকে নিরাপত্তা দান করুন। তাকে সম্মানিত মেহমান হিসেবে কবুল করুন ও তার কবরকে প্রশস্ত করুন। তার গুণাহখাতাগুলোকে নেকিতে পরিণত করুন। তার জীবনের নেক আমলসমূহ কবুল করে তাকে জান্নাতুল ফিরদাউসে স্থান দান করুন।

তার শোক-সন্তপ্ত পরিবার-পরিজনদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়ে শোকবাণীতে তিনি বলেন, আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তা’আলা তাদেরকে এ শোকে ধৈর্য ধারণ করার তাওফিক দান করুন।”

আরো সংবাদ

নোয়াখালীতে সনাতন ছেড়ে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে প্রীতি কর্মকার

সপ্তম শ্রেণী থেকে তিনি ধর্ম নিয়ে আগ্রহী হয়ে ওঠেন। নিজের ধর্মের অনেক কর্মই তার পছন্দ হতোনা। বিশেষত কোন মানুষ মরে যাওয়ার পর আগুণে পুড়িয়ে দাহস্থ করাটা কোনভাবেই সমর্থন করতে পারতেন না তিনি। তাই ইসলাম ধর্মের মহান ও পবিত্র শিক্ষা দীক্ষায় অনুপ্রাণিত হয়ে সনাতন ধর্ম ছেড়ে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন প্রীতি কর্মকার।

গত ২৮ জুন ২০১৮ সালে নোটারী পাবলিক বরাবরে সম্পাদিত এফিডেভিটমূলে প্রীতি মুসলিম ধর্ম গ্রহণ করেন। এ সময় নুশরাত জাহান এশা নামে তিনি নিজের নাম পছন্দ করেন। এশা গতকাল দুপুরে নোয়াখালী প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের জানান, তিনি যে ইসলাম গ্রহণ করেছেন এটি তার পরিবার জানলেও তারা বিষয়টি নিয়ে কোনরুপ উচ্চবাচ্য করছেননা। তবে তিনি আতঙ্কিত যে,

পরিবার থেকে তাকে চাপে পড়তে হতে পারে। যে কারণে তিনি গত প্রায় এক বছরের অধিককাল পরিবার ছেড়ে নোয়াখালীতে তার বেশকিছু ভালো বান্ধবীর সাহচর্যে মুসলিম ধর্মের অনুসারী হয়ে ধর্ম-কর্ম পালন করছেন। ফেনীর উত্তর চন্ডিপুরের বিশ^জিত কর্মকারের মেয়ে এশা কোনরুপ আড়ালে আবড়ালে না থেকে প্রকাশ্যে ইসলাম ধর্মের অনুসারী হয়ে মুসলিম রীতিনীতি পালন করতে সমাজ ও রাষ্ট্রের একান্ত সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন।

নুশরাত জাহান এশা নোয়াখালী সরকারী স্বাস্থ্য সহকারী প্রশিক্ষণ ইনষ্টিটিউট থেকে এ বছর শেষ বর্ষ সম্পন্ন করেছেন। সমাজের কারো কোন প্রকার দান বা দয়া না চেয়ে একনিমিষেই বললেন, আল্লাহ ভরসা। আল্লাহ এ পর্যন্ত ঠেকাননি। ঠেকাবেনা কোথাও