আজ থেকে আমরা শপথ নেই কেউ ৩০ টাকার বেশি ইফতার খাব না: গয়েশ্বর

‘আপনাদের এই জনপ্রতি ৩০ টাকার ইফতার করার উদ্যোগ দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারম্যান তারেক রহমানের কাছে প্রশংসিত হয়েছে। শুধু কেরানীগঞ্জের নেতাকর্মী নয়, সারা দেশের নেতাকর্মীদের বলব, আমরা শপথ নেই আজ থেকে আমরা কেউ ৩০ টাকার বেশি ইফতার খাব না।’

আজ ১৫ মে বুধবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ইফতার পূর্ব সংক্ষিপ্ত আলোচনায় গয়েশ্বর সারা দেশের বিএনপি নেতাকর্মীদের ৩০ টাকার বেশি ইফতার না করার আহ্বান জানিয়েছেন।

ঢাকা জেলার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের ব্যানারে এই ইফতারের আয়োজন করা হয়।

আজ দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট নিপুন রায় চৌধুরীর সভাপতিত্বে আয়োজিত ‘দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারাবিধি মোতাবেক দেওয়া ইফতারের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে ইফতার মাহফিল-২০১৯’

শিরোনামে এই কর্মসূচিতে আরও বক্তব্য দেন, দলের সিনিয়র যুগ্মমহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্মমহাসচিব অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, ঢাকা জেলা বিএনপির সভাপতি ডা. দেওয়ান সালাহউদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আবু আশফাক, নাজিম মাস্টার, অঙ্গ সংগঠনের নাজমুল হক অভিসহ আরও অনেকেই।

এ সময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ‘ভিত্তিহীন মামলায় দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া আজ কারাবন্দী। গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠার পক্ষে কথা বলেন,

মানুষের ভোটাধিকার নিশ্চিতের পক্ষে কথা বলেন ও আইনের শাসনের পক্ষে কথা বলার কারণেই গণতন্ত্রের এই মাতা আজ কারাগারে। আন্দোলনের মাধ্যমে তাকে মুক্ত করতে হবে।’

এখন তো পয়সা দিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, এমনকি আদালতও কেনা যায়: নাসিম

আইনমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে অনুরোধ জানিয়ে সাবেক এই স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এই সামাজিক অপরাধগুলো বন্ধ করার জন্য দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা নিতে হবে। প্রয়োজনে বিশেষ ট্রাইব্যুনালের ব্যবস্থা করুন।

বাইরের দেশগুলোতে দেখুন, তারা প্রতিটি ঘটনার দ্রুত বিচার করে। তাই তাদের অপরাধগুলো কমে আসে।’ আওয়ামী লীগের এই প্রেসিডিয়াম সদস্য বলেন, ‘আওয়ামী লীগ কোনদিনও জনগণের দ্বারা ক্ষমতাচ্যুত হয় নাই।

আওয়ামী লীগ ষড়যন্ত্র দ্বারা ক্ষমতাচ্যুত হয়েছে অথবা ক্ষমতায় আসতে পারে নাই। আজ যিনি বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান, তিনি হচ্ছেন বঙ্গবন্ধু হত্যার অন্যতম একজন খলনায়ক।

অনেক লড়াই সংগ্রাম করে আজ বঙ্গবন্ধু কন্যাকে বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার করতে হয়েছে।’ বিএনপি এখন ছিন্নভিন্ন উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমরা আল্লাহর রহমতে জনগণের সমর্থনে দীর্ঘদিন ক্ষমতায় আছি।

মনে রাখতে হবে, আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে চক্রান্ত যখন ব্যর্থ হয়, তখন গভীর ষড়যন্ত্র চলে। আজ আমরা আশ্বস্ত হতাম যদি বিএনপি বিরোধী দল হিসেবে থাকতো। ভয় ওখানে, বিএনপি এখন ছিন্নভিন্ন হয়ে গেছে।

তার জোট ছিন্নভিন্ন হয়ে গেছে।’ আলোচনা সভায় সাবেক খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য মোজাফফর হোসেন পল্টু, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের প্রতিষ্ঠাকালীন সাধারণ সম্পাদক অভিনেত্রী সাহারা কবরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

১৪ দলের মুখপাত্র ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, ‘এই দেশে পয়সা দিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে কেনা যায়, আইনজীবী কেনা যায়, এমনকি আদালত পর্যন্ত কেনা যায়।

তাই বলতে চাই, ধর্ষণের বিরুদ্ধে ট্রাইব্যুনাল করে দ্রুত বিচার করুন। তাহলে দেখবেন, এসব অপরাধ কমে গেছে। বিএনপি-জামায়াতের চেয়েও ভয়ঙ্কর এসব অপরাধী।’

বুধবার (১৫ মে) জাতীয় প্রেস ক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত ‘শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস’ উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

নারী নির্যাতন, ধর্ষণ, শিশু হত্যা নিয়ে নাসিম বলেন, ‘প্রতিদিন দেখছি নারী নির্যাতন, ধর্ষণ, শিশু হত্যা এসব আমাদের গভীরভাবে উদ্বিগ্ন করে। সরকার যখন ক্ষমতায় থাকে, তখন কেন কী কারণে সিরিজের মতো করে এ ধরনের ঘটনা ঘটছে? এ ঘটনার ক্রিমিনালরা প্রকাশ্য ঘুরে বেড়াচ্ছে?’

আরো সংবাদ পরতে পারেন

মতামত দেওয়া বন্ধ আছে